জন্মদিনে ভক্তদের ভালোবাসায় সিক্ত শ্রেয়া ঘোষাল

উপমহাদেশের জনপ্রিয় সুকণ্ঠী সংগীতশিল্পী শ্রেয়া ঘোষালের জন্মদিন ১২ মার্চ। এদিন টুইটার ট্রেন্ডিংয়ে শীর্ষ তালিকায় রয়েছে তার জন্মদিন উপলক্ষে ভক্তদের ভালোবাসা ও শুভেচ্ছার উচ্ছ্বাস।

প্রিয় গায়িকার জন্মদিনে উচ্ছ্বসিত তার শ্রোতা-ভক্তরা। তাই সামাজিক মাধ্যমে ভক্তদের অগণিত শুভেচ্ছা বার্তায় সিক্ত হচ্ছেন শ্রেয়া ঘোষাল। তাদের ভাষায়, শ্রেয়া ঘোষাল হলেন মোহনীয়, জাদুকরী, বুকভরা বিশুদ্ধ বাতাসের মতো, রেশমী, মিষ্টি, দুষ্টু, সুরেলা, অনবদ্য, নিখুঁত, হৃদয়ভাঙা, দুর্দান্ত, অভিজাত, অনেক কালোত্তীর্ণ গানের স্রষ্টা, সোনালি কণ্ঠের গায়িকা। আসলে হাজার হাজার ভক্তের অগণিত শুভেচ্ছা বার্তায় প্রশংসা ও মুগ্ধতার যেন শেষ নেই।

১৯৮৪ সালের ১২ মার্চ জন্ম নিয়েছিলেন বাঙালি সংগীতশিল্পী শ্রেয়া ঘোষাল। মাত্র চার বছর বয়স থেকেই শুরু হয়েছিল তার সংগীতের তালিম। সহযোগী ছিলেন তার মা। শাস্ত্রীয় সংগীতের শিক্ষা শুরু করেন ছয় বছর বয়সে। ১৬ বছর বয়সে সংগীতভিত্তিক রিয়েলিটি শো ‘সা রে গা মা পা’র মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ের শীর্ষ সংগীতজ্ঞদের নজর কাড়েন তিনি।

২০০২ সালে শ্রেয়াকে বিখ্যাত ‘দেবদাস’ সিনেমায় গান করার সুযোগ দেওয়া হয়। আর সেই সুযোগেই নিজের মেধা মেলে ধরেন শ্রেয়া। প্রথম নেপথ্য সংগীত দিয়েই তিনি অর্জন করেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এরই সঙ্গে বলিউডে পাকাপোক্ত নেপথ্য সংগীতশিল্পী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। হয়ে ওঠেন বলিউডের সুরের রানী।

মাত্র ৩৬ বছর বয়সেই শ্রেয়া ঘোষাল সেরা সংগীতশিল্পী হিসেবে অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে চারটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, চারটি ফিল্মমেয়ার পুরস্কার, সাতটি করে আইফা ও ফিল্মফেয়ার (দক্ষিণ) পুরস্কার, ছয়টি করে জি সিনে অ্যাওয়ার্ড ও স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড অন্যতম।