না ফেরার দেশে কাট-কপি-পেস্টের জনক

১৯৪৫ সালে নিউ ইয়র্কের ব্রোনক্সে জন্ম নেওয়া টেসলার পড়াশোনা করেন ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে

কম্পিউটার যুগের শুরুর দিককার কিংবদন্তী প্রযুক্তিবিদ ল্যারি টেসলার (৭৪) মারা গেছেন। গত সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) মারা যান তিনি।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) এমন খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা বিবিসি।

বিজ্ঞানী টেসলারের ‘‘কাট’’, ‘‘কপি’’, ‘‘পেস্ট’’ কমান্ড সিস্টেমসহ বেশ কিছু আবিষ্কার মানুষের কাছে কম্পিউটারের ব্যবহারকে সহজ করে তুলেছে।

প্রখ্যাত এই প্রযুক্তিবিদ ষাটের দশকের শুরুর দিকে প্রযুক্তি তথা আইটি খাতের স্বর্গরাজ্যখ্যাত সিলিক্যান ভ্যালিতে কাজ শুরু করেছিলেন। তখন সাধারণ মানুষ ছিলেন কম্পিউটার জগত থেকে অনেকটা দূরে।

প্রযুক্তি জগতের এই কিংবদন্তির মৃত্যুতে গভীর শ্রদ্ধা জানিয়েছে ‘‘জেরক্স’’। যেখানে নিজের ক্যারিয়ারের অনেকটা সময় কাটিয়েছেন টেসলার।

১৯৪৫ সালে নিউ ইয়র্কের ব্রোনক্সে জন্ম নেওয়া টেসলার পড়াশোনা করেন ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে।

স্ট্যানফোর্ড আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স ল্যাবরেটরিতে গবেষণার সময়েই কমপেল নামে সিঙ্গল অ্যাসাইনমেন্ট ল্যাঙ্গুয়েজ আবিষ্কার করেন তিনি। পরে জেরক্স পালো অল্টো রিসার্চ সেন্টারের সদস্য হন এবং সেখানে কাজের সময়েই ১৯৭০ সালে আবিষ্কার করেন কম্পিউটারের কাট-কপি-পেস্ট কম্যান্ড।